হার্ডওয়ার আপগ্রেড করে পিসির গতি বাড়ানোর সহজতম ২টি টিপস

Posted: January 1, 2011 in Tips

হার্ডওয়ার আপগ্রেড করে পিসির গতি বাড়ানোর সহজতম ২টি টিপস

এইটা সবাইই বুঝেন যে পিসির গতি বাড়ানোর জন্য হার্ডওয়ার আপগ্রেড করার চেয়ে ভাল কোন উপায় আর হতে পারে না।কিন্তু বাজেট স্বলপতার জন্য সবসময় কি আর তা করা সম্ভব?আর করলেও বা কতোটুকুই করবেন?কোনটা রেখে কোনটা আপগ্রেড করবেন?এই প্রসঙ্গেই কিছু কথা বলছি।

RAM বাড়ান,যতটা সম্ভব
এটি মনে হয় পিসির পারফরম্যান্স বাড়ানোর সহজতম ছোট টিপস। পকেটে টাকা আছে? থাকলে আজই কিনে ফেলুন RAM। কেননা পিসি চলাকালীন সময়ে যত কাজ হয় তার সবকিছুই ট্রান্সমিট হয় RAM-এর মধ্য দিয়ে। তাই RAM মেমোরি যত বেশি হবে আপনার কাজও তত দ্রুত হবে এই কথা নিঃসন্দেহে বলা যায়। এবং বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই RAM মেমোরি বাড়ালে উইন্ডোজের পারফরম্যান্স এ পরিবর্তনটা ঈর্ষণীয় (!) পর্যায়ের। তবে খেয়াল রাখবেন নতুন RAMটি যেন আপনার পুরাতন RAM-এর সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ বাসস্পিড বিশিষ্ট হয়। নাহলে সিস্টেম হ্যাং করতে পারে। আর চেষ্টা করবেন বেশি বাসস্পিডের RAM কিনতে। বর্তমানে বাজারে ডিডিআর২ ৫৩৩, ৬৬৭, ৮০০,১০৬৬ এবং ডিডিআর৩ ১৩৩৩ মেগাহার্জ স্পিডের RAM পাওয়া যাচ্ছে। আর আপনার মাদারবোর্ড যদি ডুয়েল চ্যানেল মেমোরি সাপোর্টেড হয় তাহলে RAM একটির বদলে দুটি কিনে RAM দুটি একই রঙের স্লটে স্থাপন করুন। ব্যাস। বর্ধিত বাসস্পিড পাবেন আপনি।

আপগ্রেড করুন আপনার গ্রাফিক্স কার্ড
বর্তমানে প্রায় সব মাদারবোর্ডেই ইন্টিগ্রেটেড গ্রাফিক্স বা এজিপি কার্ড বিশিষ্ট। সাধারণ প্রায় সব কাজের জন্য এই ইন্টিগ্রেটেড কার্ডই যথেষ্ঠ। এই এজিপি কার্ডগুলো মূল র‌্যাম থেকে মেমোরি শেয়ার  করে কাজ করে। তাই বর্তমানে অনেকেই যেই কাজটা করে বেশি করে র‌্যাম কিনে এই ইন্টিগ্রেটেড এজিপি থেকে সর্বোচ্চ পারফরম্যান্স পাবার চেষ্টা করেন। তারা ভাবেন, ‘এই ভাবে কম খরচে র‌্যাম যেমন বাড়ানো গেল তেমনি এজিপির কাজটাও চললো।’ হ্যাঁ, কথাটা হয়তো ঠিক আবার কিছুটা ভুল। কারণ ইন্টিগ্রেটেড এজিপি মেমোরি ৫১২ মেগাবাইট হতে পারে সত্যি কিন্তু তা কখনই আসল এজিপি কার্ডের সমতূল্য হতে পারে না। তাই গেমার বা প্রফেশনালদের বলছি, বাড়তি র‌্যাম লাগিয়ে এজিপি বাড়ানো এই কথাটি আপনাদের জন্য প্রযোজ্য নয়।কারন মাঝারি মানের একটি এজিপি কার্ডের দামই যেখানে ৫০০০ টাকার উপরে সেখানে আপনার মাদারবোর্ডের দাম কতো ভাবুনতো একবার?মনে রাখবেন বর্তমানে মাদারবোর্ডের বিজ্ঞাপনে লিখা ১৭০০+ মেগাবাইট এজিপি কার্ডের চেয়েও আপনার ৫০০০ টাকা দামের ৫১২ মেগাবাইট এজিপি কার্ডের পারফরম্যান্স অনেক অনেক ভাল।আর লেটেস্ট গেমগুলার মধ্যে কিছু কিছু গেম কিন্তু ইন্টিগ্রেটেড এজিপি দিয়ে চালুই হয় না। আর ভালোমানের দামী এজিপি কার্ডগুলার জন্য আলাদা পাওয়ার সাপ্লাই প্রয়োজন হয়।সুতরাং সেক্ষেত্রে আপনার পুরাতন পাওয়ার সাপ্লাইটি পরিবর্তন করা লাগতে পারে।আর নতুন পিসি কেনার সময় বিষয়টি খেয়াল রাখুন।


Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s