২০১০-এর সেরা ৫০ ওয়েবসাইট

Posted: January 1, 2011 in Internet, Link

ওয়েব ওয়ার্ল্ডে প্রতিনিয়তই যোগ হচ্ছে লক্ষ লক্ষ নতুন ওয়েবসাইট। খেলাধূলা থেকে শিক্ষা বা বিনোদন, যত বিষয় ভাবা যায় প্রায় সবগুলোতেই কোনো না কোনো ওয়েবসাইট রয়েছে। এসব ওয়েবসাইটের সংখ্যা এতোই বেশি যে, কোনটি রেখে কোনটি ব্যবহার করা উচিৎ তা নিয়েই চিন্তিত হয়ে পড়তে হয়। তবে প্রযুক্তিপ্রেমী ও সাধারণ ইন্টারনেট ব্যবহারকারী সবার জন্যই প্রতিবছর টাইম ম্যাগাজিন নির্বাচন করে বিভিন্ন বিভাগের সর্বমোট ৫০টি সেরা ওয়েবসাইট। বরাবরের মতো ২০১০ সালেও ৫০টি সেরা ওয়েবসাইটের তালিকা প্রস্তুত করেছে এ সাময়িকী। নির্বাচিত সেসব ওয়েবসাইট সম্পর্কে পাঠকদের জানাতে এই ফিচার।

মিউজিক ও ভিডিও : ভিমিও

ইন্টারনেটে ভিডিও বা মিউজিক ভিডিও দেখতে চাইলে সবার আগে যে নামটি আসে, তা হলো ইউটিউব। তবে এবারের মিউজিক ও ভিডিও বিভাগের তালিকার শীর্ষে ইউটিউবের বদলে স্থান করে নিয়েছে ভিমিও। ভিমিও বহুদিন ধরেই বেশ জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং ওয়েবসাইট। বলা যায়, খুব একটা নাম শোনা না গেলেও ক্ষেত্রবিশেষে ইউটিউবের চেয়েও দারুণ সব ভিডিও প্রায়ই খুঁজে পাওয়া যায় এই সাইটটিতে। টাইম বলছে, সৃজনশীল ভিডিও নির্মাতাদের অন্যতম পছন্দ ভিমিও। ইউটিউবে প্রায় সব ধরনের ভিডিও পাওয়া যায়। ভিমিওতেও একই অবস্থা হলেও ভিমিওর অধিকাংশ ভিডিওর মানই উন্নত এবং সহজেই বিভিন্ন মিউজিক ভিডিওর হাই-ডেফিনিশন মানের ফাইল খুঁজে পাওয়া যায়।

ভিডিও সংক্রান্ত উদাহরণ দিয়ে টাইম বলেছে, ইউটিউবে ‘প্রেসিডেন্ট’ লিখে সার্চ করলে মিউজিক ভিডিও (যার অধিকাংশই ক্যাম প্রিন্ট) অথবা পুরনো কোনো টেলিভিশন সংবাদের অংশ পাওয়া যাবে। একই টার্ম লিখে ভিমিওতে সার্চ করলে পাওয়া যাবে মজাদার সব অ্যানিমেটেড ভিডিও। টাইমের মতে, শৈল্পিক ভিডিওচিত্রেরও একটি বিশাল সমাহার রয়েছে এই ভিমিওতে। সাইটটি সম্প্রতি এইচটিএমএল৫ সাপোর্টেড ভিডিও প্লেয়ার চালু করেছে যা যে কোনো সাইটে সহজেই যুক্ত (এমবেড) করা যাবে। ভিমিও ওয়েবসাইটের ঠিকানাঃ http://www.vimeo.com/

এই বিভাগের আরো চারটি ওয়েবসাইট
মুভিক্লিপসঃ http://www.movieclips.com/
গ্রুভশার্কঃ http://www.grooveshark.com/
মগঃ http://www.mog.com/
লাবুয়াটঃ http://soytuaire.labuat.com/

স্পোর্টস: স্পোর্টস-রেফারেন্স

বেসবল, ফুটবল, বাস্কেটবল, হকি, কলেজ ফুটবল, কলেজ বাস্কেটবল এবং অলিম্পিকস – এই সাত ধরনের খেলা সম্পর্কিত যে কোনো তথ্য খুঁজে পেতে টাইমের চোখে সেরা ওয়েবসাইট স্পোর্টস রেফারেন্স। টাইম বলছে, খেলাধূলার জগতের বহু পুরনো যে কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যাবে এই সাইট থেকে। একইভাবে সমসাময়িক তথ্যও আপডেট করা হয় সাইটটিতে। ফলে, সবমিলিয়ে খেলাধূলা বিষয়ক ওয়েবসাইটসমূহের তালিকার শীর্ষে রয়েছে স্পোর্টস রেফারেন্স। সাইটটির ঠিকানাঃ http://www.sports-reference.com/

এই বিভাগের আরো চারটি ওয়েবসাইট
রোটোওয়ার্ল্ডঃ http://www.rotoworld.com/
ইয়ার্ড বার্কারঃ http://www.yardbarker.com/
টোটাল প্রে স্পোর্টসঃ http://www.totalprosports.com/
সিটিজেন স্পোর্টসঃ http://www.citizensports.com/

ফ্যামিলি অ্যান্ড কিডসঃ ডিজাইন মম

ইন্টেরিয়র ডিজাইনার গ্যাব্রিয়েল ব্লেয়ার ৬ সন্তানের মা। তিনি বেশ ব্যস্ত জীবন-যাপন করেন। এই কথা শুনলে অনেকেরই হয়তো মনে হবে তিনি ৬ সন্তানকে নিয়েই তার এই ব্যস্ততা। কিন্তু বাস্তবতা সম্পূর্ণ ভিন্ন। তার এই ব্যস্ততা কেবল পরিবার বা বাচ্চাদের ঘিরে নয়, বরং ডিজাইন ও যাবতীয় কার্যক্রমকেও একইসঙ্গে ঠিক রাখেন তিনি। কীভাবে তিনি সবদিক ঠিক রেখে উপরন্তু ডিজাইনিং-এ কাজ করেন, এই নিয়ে তার একটি সাইটও রয়েছে। ডিজাইন মম নামের এই সাইট টাইমের চোখে ফ্যামিলি অ্যান্ড কিডস বিভাগের বর্ষসেরা ওয়েবসাইট।

ডিজাইন মম ওয়েবসাইটটিতে ঢুকলেই পরিচ্ছন্নতা ও রুচিশীলতার ছোঁয়া পাওয়া যায়। প্রযুক্তির যান্ত্রিকতা ও মানুষের দৈনন্দিন কর্মব্যস্ততায় যেসব ঘরোয়া শিল্প মানুষ ভুলেই গিয়েছে, মায়েদের মধ্য দিয়ে সেসব শিল্প ফিরিয়ে আনাই যেন এই সাইটটির অন্যতম উদ্দেশ্য। যেসব নারী দিনের বেশিরভাগ সময় ঘরে থাকেন অথবা বাচ্চাদের সময় দেয়ার কারণে ঘর থেকে খুব একটা বের হতে পারেন না, তাদের জন্য পারফেক্ট একটি সাইট ডিজাইন মম। ঠিকানাঃ http://www.designmom.com/

এই বিভাগের আরো চারটি ওয়েবসাইট
সিরিয়াস ইটসঃ http://www.seriouseats.com/
ব্যাবলঃ http://www.babble.com/
এটসিঃ http://www.etsy.com/
সিসেম স্ট্রিটঃ http://www.sesamestreet.org/

নিউজ অ্যান্ড ইনফো: গার্ডিয়ান

টাইমের চোখে সংবাদ ও তথ্য বিষয়ক ওয়েবসাইটের তালিকায় শীর্ষস্থান দখল করে নিয়েছে গার্ডিয়ান অনলাইন। বৃটিশ এই পত্রিকার ওয়েবসাইটের রুচিশীল ডিজাইন ও সংবাদ পরিবেশনের ব্যতিক্রমী ধারা যে কোনো পাঠককে মুগ্ধ করতে সমর্থ। গার্ডিয়ানের অন্যতম বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, এই সাইটটির জন্য বেশ কিছু মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে যার মাধ্যমে মানুষ সারাক্ষণই সংবাদের আপডেট পেতে পারেন।

টাইম বলছে, অন্যান্য বৃটিশ পত্রিকাগুলোর বেশিরভাগই যেখানে টাকার বিনিময়ে সংবাদ পড়তে দিচ্ছে, সেখানে গার্ডিয়ান এর সবটুকুই বিনামূল্যে উন্মুক্ত রেখেছে। কেবল তাৎক্ষণিক সংবাদই নয়, বরং এর বিশাল আর্কাইভের হাজার হাজার আর্টিকেলও সবার জন্য উন্মুক্ত। এ ছাড়াও ডেভেলপারদের জন্যও অ্যাপ্লিকেশন তৈরির সুযোগ দিচ্ছে গার্ডিয়ান। সেসব অ্যাপ্লিকেশনে গার্ডিয়ানের বিভিন্ন সামগ্রী ব্যবহার করা যাবে। গার্ডিয়ান এর ঠিকানা: http://www.guardian.co.uk/

এই বিভাগের আরো চারটি ওয়েবসাইট
দি অনিয়নঃ http://www.theonion.com/
দি ডেইলি বিস্টঃ http://www.dailybeast.com/
ন্যাশনাল জিওগ্রাফিকঃ http://www.nationalgeographic.com/
উইকিলিকসঃ http://www.wikileaks.com/

ফিন্যান্সিয়াল অ্যান্ড প্রোডাক্টিভিটি: মিন্ট

ধরুন, আপনি অবসর নেয়ার পরের দিনগুলোর জন্য টাকা জমানোর পরিকল্পনা করছেন। আপনার সামগ্রিক আয়-ব্যয় ইত্যাদি বিবেচনা করে হিসেব-নিকেশ করা যদি কঠিন মনে হয় আর এ জন্য যদি আপনি ইন্টারনেটে কোনো সমাধানের আশা করেন, তাহলে মিন্ট আপনারই জন্য। এই সাইটে অ্যাকাউন্ট খুললে এটি প্রতিনিয়ত আপনার ক্রেডিট কার্ড, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট, ঋণ, বিনিয়োগ ইত্যাদি সবকিছুর হিসেব রাখবে। এই সাইটের অন্যতম উপকারিতা হলো এটি আপনাকে অকারণে খরচ করা কমাতে সাহায্য করবে। এটি ব্যবহার করলে আপনি প্রতিটি টাকা কোথায় ব্যয় করছেন তা পর্যবেক্ষণ করতে পারবেন যে কোনো সময়, যা অন্যভাবে হয়তো সম্ভব হতো না। মিন্টে অ্যাকাউন্টে প্রতি ২৪ ঘণ্টায় একবার করে আপডেট হয় বলে জানিয়েছে টাইম। মিন্টের ঠিকানাঃ http://www.mint.com/

এই বিভাগের আরো চারটি ওয়েবসাইট
উইকিনভেস্টঃ http://www.wikiinvest.com/
স্টকম্যাপারঃ http://www.stockmapper.com/
স্প্রিংপ্যাডঃ http://www.springpadit.com/
ওয়েকর‌্যাপারঃ http://www.springpadit.com/

শপিং অ্যান্ড ট্রাভেল: গ্রুপন

বাংলাদেশে এখনো ই-কমার্স বা অনলাইন বাণিজ্য ততোটা জনপ্রিয় বা কার্যকরী হয়নি। এছাড়াও রেস্টুরেন্ট, ট্রাভেল, শপিং ইত্যাদি তেমন একটা অনলাইন নির্ভরও হয়নি এখনো। তবে বহিঃর্বিশ্বে এসব কিছুই অনলাইনে করা হয়ে থাকে। আর আপনি যদি যুক্তরাষ্ট্র বা কানাডার বাসিন্দা হয়ে থাকেন, তাহলে গ্রুপন হতে পারে আপনার পছন্দের একটি সাইট।

গ্রুপন ওয়েবসাইটটি এই দু’টি দেশের ৯০টি শহরের বিভিন্ন রেস্টুরেন্ট ও শপিং মলের প্রতিদিনকার ছাড় বা বিভিন্ন অফারের আপডেট দিয়ে থাকে। এছাড়াও রেস্টুরেন্ট মালিকদের জন্যও বিশেষ সুবিধা রয়েছে গ্রুপনের। ঠিকানাঃ http://www.groupon.com/

এই বিভাগের অন্যান্য ওয়েবসাইটঃ
গ্লিটঃ http://www.gilt.com
রেন্ট দি রানওয়েঃ http://www.renttherunway.com/
স্টেঃ http://www.stay.com/
সিট গুরুঃ http://www.seatguru.com/

হেলথ অ্যান্ড ফিটনেসঃ কেয়াস

অধিকাংশ স্বাস্থ্য বিষয়ক সাইটেই সাধারণ কিছু পরামর্শ বা টিপস দেয়া থাকে। কিন্তু প্রত্যেকেরই ভিন্ন ধরনের স্বাস্থ্য বিষয়ক পরামর্শের প্রয়োজন হয়। কেননা, সবার শরীর বা স্বাস্থ্য এক নয়। কেয়াস সাইটটি ব্যবহারকারীকে পারসোনালাইজড হেলথ কেয়ার দেবে। এর মাধ্যমে আপনি আপনার ব্যক্তিগত মেডিকেল ডাটা ব্যবহার করে কেবল আপনার জন্য প্রযোজ্য স্বাস্থ্য বিষয়ক পরামর্শ পেতে পারেন। এই সাইটটির অন্যতম বৈশিষ্ট্য হচ্ছে এতে রয়েছে ফেসবুকের মতো একটি কমিউনিটি যেখানে আপনি অন্যান্য ব্যবহারকারীদের সঙ্গেও যোগাযোগ স্থাপন করতে পারবেন। ঠিকানাঃ http://www.keas.com/

এই বিভাগের অন্যান্য ওয়েবসাইটঃ
মেয়ো ক্লিনিকঃ http://www.mayoclinic.com/
ওয়াক জগ রানঃ http://www.walkjogrun.net/
এক্সারসাইজ টিভিঃ http://www.exercisetv.tv/
ফিট বাই ফানঃ http://www.fitbyfun.com

সোশাল মিডিয়াঃ গোয়ালা

আপনি এই মুহুর্তে কোথায় আছেন তা বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করার চল এ বছর বেশ বৃদ্ধি পেয়েছে। সম্প্রতি ফেসবুক প্লেস নামে এই ধরনের একটি সেবা চালু হলেও লোকেশন শেয়ারিং সার্ভিসের কথা বললেই উঠে আসে ফোরস্কয়ারের নাম। তবে ফোরস্কয়ারের শক্তিশালী প্রতিদ্বন্দ্বী গোয়ালাই এবছরের সোশাল মিডিয়ার শ্রেষ্ঠ ওয়েবসাইটের সম্মান অর্জন করে নিল।

গোয়ালা ও ফোরস্কয়ার প্রায় একই ধরনের সেবা হলেও গোয়ালা ব্যবহার করা বেশ মজাদার। এর মাধ্যমে ব্যবহারকারী তার অবস্থানের সঙ্গে সঙ্গে ছবিও আপলোড করে বন্ধুদের খুঁজে বের করার জন্য রেখে দিতে পারেন। এছাড়াও বিভিন্ন স্থান ভ্রমণের পর সেসব জায়গার ছবি ও নোটও শেয়ার করতে পারেন বন্ধুদের সঙ্গে। সর্বোপরি সাইটটির মজাদার ইন্টারফেসই ব্যবহারকারীকে গোয়ালার দিকে আকৃষ্ট করে রাখে। ঠিকানাঃ http://www.gowalla.com/

এই বিভাগের অন্যান্য ওয়েবসাইটঃ
ফুডস্পটিংঃ http://www.foodspotting.com
লিংকড ইনঃ http://www.linkedin.com
স্টকটুইটসঃ http://www.stocktwits.com/
টামবলআরঃ http://www.tumblr.com/

গেমসঃ কনগ্রিগেইট

অনলাইন ফ্ল্যাশ গেমিংয়ের জগতে মিনিক্লিপ এক সময় শীর্ষে থাকলেও এ বছর কনগ্রিগেইটকে পেছনে ফেলতে পারেনি কেউ। সাইটের অসংখ্য আসক্তিকর গেমের মাঝে পড়লে আপনার সারাদিন কেটে যাবে আপনি হয়তো টেরই পাবেন না। এছাড়াও কনগ্রিগেইটের অন্যতম সুবিধা হচ্ছে, আপনি রেজিস্ট্রেশন করে খেললে পয়েন্ট অর্জন করতে পারবেন যা পরবর্তীতে সাইটে ব্যবহার করে বিভিন্ন সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। এছাড়াও গেম ডেভেলপাররাও সাইটে অংশগ্রহণ করতে পারেন। কেননা, সর্বোচ্চ রেট পাওয়া গেমের ডেভেলপারের জন্য প্রতি মাসেই পুরস্কারের ব্যবস্থা করে কনগ্রিগেইট। ঠিকানাঃ http://www.kongregate.com/

এই বিভাগের অন্যান্য ওয়েবসাইটঃ
ক্যাকটাস স্কুইডঃ http://cactusquid.blogspot.com/
পোগোঃ http://www.pogo.com/
গেমসঃ http://www.games.com/

এডুকেশনঃ লাইভমোচা

লাইভমোচা ওয়েবসাইটে প্রায় ৩০টি ভাষা শিক্ষার বিভিন্ন টিউটোরিয়াল পাওয়া যায়। তবে এটি সাইটটির মূল বিশেষত্ব নয়। সাইটটির মূল বিশেষত্ব রয়েছে এর কমিউনিটিতে। এই সাইটের রয়েছে ৬০ লক্ষ ব্যবহারকারীর এক বিশাল কমিউনিটি। এতে করে কেউ যখনই সাইট থেকে কোনো কিছু শিখে তার এক্সারসাইজ আপলোড করেন, তা গ্রেড করার জন্য কেউ না কেউ সময় দেনই। এতে করে শিক্ষার্থীর ছোটখাটো ভুলগুলোও শুধরে নেয়ার সুযোগ তৈরি হয়। এছাড়াও নতুন কোনো ভাষা শিক্ষায় সেই ভাষায় সবসময় কথা বলেন এমন কারো সাহায্য পাওয়া যেমনি জরুরি, ঠিক তেমনি বিরল। লাইভমোচা সাইটই সবাইকে সেই বিরল সুযোগ দিচ্ছে। এক কথায়, ভাষা শেখার জন্য অসাধারণ একটি সাইট এটি, যা শিক্ষা বিষয়ক ওয়েবসাইটসমূহের তালিকার শীর্ষস্থানে রয়েছে এ বছর। ঠিকানাঃ http://www.livemocha.com/

এই বিভাগের অন্যান্য ওয়েবসাইটঃ
শেগঃ http://www.chegg.com
এমআইটি ওপেনকোর্সওয়্যারঃ http://www.ocw.mit.edu/
রিড প্রিন্টঃ http://www.readprint.com/y
টিইডিঃ http://www.ted.co

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s